আমাদের মেইল করুন abasonbarta2016@gmail.com
শেষ হলো আন্তর্জাতিক ছয় প্রদর্শনীর মিলনমেলা

দেশি, বিদেশি গ্রাহক ও ক্রেতাদের পদচারণার মধ্যে দিয়ে শেষ হয়েছে তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক কন-এক্সপো, সেফটি, ওয়াটার, সোলার, পাওয়ার এবং রিয়েল এস্টেট প্রদর্শনী। গত বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) থেকে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) শুরু হওয়া এই প্রদর্শনী চলে শনিবার (২৮ অক্টোবর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত। আন্তর্জাতিক আয়োজক সংস্থা কনফারেন্স এন্ড এক্সিবিশন ম্যানেজমেন্ট সার্ভিসেস লিমিটেড- সেমস্ গ্লোবাল আয়োজিত এই প্রদর্শনী প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত ছিলো। আইসিসিবির তিনটি হলে বাংলাদেশ, ভারত, রাশিয়া, জাপান, আমেরিকা, ইউক্রেন, সিঙ্গাপুর, চীন, ইংল্যান্ড, মালয়েশিয়া, আরব আমিরাত, দক্ষিণ কোরিয়া, ইতালি, জার্মানি ও তুরস্কের ২৫০টি প্রতিষ্ঠানের ৩৫০টি স্টল স্টল অংশ নেয়।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় আইসিসিবির সেমিনার কক্ষে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মাধ্যমে ‘১৯তম পাওয়ার বাংলাদেশ এক্সপো ২০১৭’, ‘১৪ তম সোলার বাংলাদেশ এক্সপো ২০১৭’, ‘২১তম কন-এক্সপো বাংলাদেশ ২০১৭’, ‘১৮তম রিয়েল এস্টেট এক্সপো বাংলাদেশ ২০১৭’, ‘২য় ইন্টারন্যাশনাল সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি এক্সপো বাংলাদেশ ২০১৭’, এবং ‘ওয়াটার বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো ২০১৭’ এই ছয় প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম।

আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীগুলোতে ছিলো- বিদ্যুৎ উৎপাদন ও বিতরণ, সৌর বিদ্যুৎ, জ্বালানি, নবায়নযোগ্য জ্বালানি, নির্মাণসামগ্রী, নির্মাণকৌশল, যন্ত্রাংশ, সেফটি ও সিকিউরিটি, ওয়াটার, ওয়েস্ট ওয়াটার টেকনোলজি ও আবাসন শিল্পের পণ্য ও সেবার সমাহার। www.e-registrations.com ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রি-রেজিস্ট্রেশন বা ভেন্যূতে সরাসরি রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে দর্শনার্থীরা প্রদর্শনীগুলো উপভোগ করেন।

শনিবার (২৮ অক্টোবর) বিকালে আইসিসিবি প্রদর্শনীতে গিয়ে দেখা যায়, ‘এনআর জাপান বিডি লিমিটেড’ এর স্টলে ক্রেতাদের ভিড় চোখে পড়ার মতো। এগিয়ে গিয়ে জানা যায়, প্রদর্শনী উপলক্ষে গাড়ি বুকিং দিলে প্রতিষ্ঠানটি ১০-২০ হাজার টাকা ছাড় দিচ্ছে। এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির চিফ অপারেশন অফিসার মোহাম্মদ এ কে আজাদ সাংবাদিকদের বলেন, প্রদর্শনীতে আমাদের আশার চেয়ে বেশি সাড়া পেয়েছি। ২০ লাখ টাকার মধ্যে গাড়ি কিনলে ১০ হাজার আর ২০ লাখের বেশি হলে ২০ হাজার টাকার ছাড় দেওয়া হচ্ছে। প্রদর্শনীতে ২০টির বেশি গাড়ি তাদের বুকিং হয়েছে।

স্টলটিতে উপস্থিত এক ক্রেতা শফিউর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, কোম্পানিটি সরাসরি জাপান থেকে গাড়ি আমদানি করে। জাপানের অকশনে তাদের নামও আছে। ফলে আমাদের চাহিদা মতো জাপানি গাড়ি তারা দিতে পারবে বলে আশ্বস্ত করেছে। এজন্য তাদের শো-রুমে গিয়ে পছন্দ মতো গাড়ি কিনব বলেও তিনি জানান।

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা কেন্দ্রিক আবাসিক ও ব্যবসায়িক ফ্ল্যাটের ‘প্রমোশনকে’ কেন্দ্র করে মেলায় কার্যক্রম পরিচালনার কথা জানান রূপায়ন হাউজিং এস্টেটের সহকারী ব্যবস্থাপক (সেলস) মোতালেব হোসেন। তিনি বলেন, বসুন্ধরা এলাকায় আমাদের ১০৭ কাঠার আবাসিক কন্ডোমিনিয়াম প্রজেক্ট আছে। সেখানে অ্যাপার্টমেন্টের পাশাপাশি খেলার মাঠ, সুপারশপ, মেডিসিন সেন্টার ও মসজিদ থাকবে। ৯০ কাঠা ও সাড়ে ৪২ কাঠার দুইটি কমার্শিয়াল প্রজেক্টও আছে।

আবাসিক প্রকল্পের ৬০ শতাংশ কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে জানিয়ে মোতালেব বলেন, মেলায় বুকিং দিলে আমরা সব প্রজেক্টে ১০ শতাংশ করে ছাড় দিচ্ছি। আবাসিক প্রকল্পটি ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ হবে। মানুষের কাছে মেলায় ‘আশানুরূপ সাড়া’ পাওয়ার কথা জানান তিনি।

প্রদর্শনীতে ইউএস-বাংলা অ্যাসেটস এর স্টলেও রয়েছে ভিড়। কথা হয় গ্রাহক নাজিম আলীর সঙ্গে। তিনি বলেন, প্রদর্শনীতে প্লট বুকিং দিলেই বিদেশ সফর। তবে এটি বড় কথা নয়। বড় কথা হচ্ছে, যেখানে প্লট কিনব সেখানে কি ধরনের সেবা পাবো। আর সেটাই হচ্ছে একজন গ্রাহকের সবচেয়ে বড় সুবিধা।

এদিকে, পূর্বাচল আমেরিকান সিটিতে একজন নাগরিকের যা প্রয়োজন সেটাই আছে বলে জানানো হয়।

ইউএস-বাংলা অ্যাসেটস এর সহকারী ম্যানেজার মো. মোফাজ্জল হোসেন বলেন, আমাদের প্লট বুকিং দিলেই বিদেশ সফরের সুযোগ। পাশাপাশি এককালীন মূল্য পরিশোধেও রয়েছে ২৫ শতাংশ ছাড়। আর কাঠা প্রতি প্লটের মাসিক কিস্তি সর্বনিম্ন ৭ হাজার ৪১৬ টাকা।

প্রদর্শনীতে সাড়া কেমন পেলেন জানতে চাইলে মোফাজ্জল হোসেন বলেন, বেশ সাড়া পেয়েছি। আমাদের বেশ কয়েকটি বুকিং ও হয়েছে। অপরদিকে প্রদর্শনীর স্থান হিসেবে আইসিসিবিকে ধন্যবাদ দেন। কেননা গ্রাহকরা এখানে এসে ঘুরে ফিরে প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছেন।

পূর্বাচলে প্লট বিক্রির পসরা নিয়ে মেলায় হাজির হয়েছে বায়ো গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান বিপিএল হাউজিং লিমিটেড; প্লট কিনে এককালীন পরিশোধ করলে ৫০ হাজার টাকা ছাড় দেওয়ার কথা জানান সেখানকার ব্যবস্থাপকরা।

মেলার স্টলে বিপিএল হাউজিংয়ের এক্সিকিউটিভ মিলাদ উদ্দিন বলেন, পূর্বাচল বিপিএল টাউনে প্লট বিক্রির বিষয় প্রদর্শন করছি আমরা। ৪০০ বিঘার পরিকল্পনা নিয়ে এই প্রকল্পে ১০০ বিঘা কেনা আছে। এই ১০০ বিঘার ৫০ শতাংশের মতো বিক্রি হয়েছে। আরও ১০০ বিঘার মতো বায়না করা আছে, আমাদের হাতে আসার অপেক্ষায়।

বিক্রির পাশাপাশি প্রমোশনের জন্য মেলায় আসার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের এই সিঙ্গেল প্রজেক্ট। ক্রয়কৃত জমিতে মাটি ভরাটের কাজ চলছে। তিন ও পাঁচ কাঠার প্লট। প্রতি কাঠার দাম ৯ লাখ টাকা করে। এখন যেগুলো বুকিং দেওয়া হচ্ছে সেগুলো ২০২০ সালের মধ্যে হস্তান্তর করতে পারব আমরা।

সম্পাদনা: আরএ/আরবি/এসএ

মন্তব্য