আমাদের মেইল করুন dhunatnews@gmail.com
পরিবেশবান্ধব শিল্পায়নে তিন দিনব্যাপী ‘গ্রিন এক্সপো’ শুরু

রাজধানী ঢাকায় শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী গ্রিন কনভেনশন এন্ড এক্সপো-২০১৭। শনিবার (২৫ নভেম্বর) থেকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুরু হওয়া এই এক্সপো চলবে আগামী সোমবার বিকাল ৫টা পর্ন্ত। শনিবার সকালে এই এক্সপোর উদ্বোধন করেন বন ও পরিবেশ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু। দেশে টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষে পরিবেশবান্ধব ও জ্বালানীসাশ্রয়ী নির্মাণসামগ্রী প্রযুক্তির প্রসারে এ সম্মেলন ও প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে বাংলাদেশ ইনফ্রাস্ট্রাক্চার ফাইন্যান্স ফান্ড লিমিডেট (বিআইএফএফএল)। সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রদশনী সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, তিন দিনব্যাপী এই প্রদর্শনীতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৭১টি স্টলের মাধ্যমে পরিবেশবান্ধব ও জ্বালানীসাশ্রয়ী নির্মাণসামগ্রী প্রযুক্তি এবং জাতীয় প্রকল্পের অর্থায়ন সুবিধার বিভিন্ন দিক তুলে ধরা হয়েছে। যেমন রয়েছে- পরিবেশবান্ধব ইট কারখানা, নবায়নযোগ্য শক্তি, পরিবেশবান্ধব ভবন/শিল্প নির্মাণ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং সর্বোপরি দক্ষ এবং সাশ্রয়ী প্রযুক্তির ব্যবহার সামগ্রী। এছাড়া, রয়েছে বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা, ব্যাংক নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

আয়োজকরা জানান, ২০১৬ সালে বিআইএফএফএল দেশে প্রথমবারের মতো পরিবেশবান্ধব নির্মাণসামগ্রী প্রযুক্তির প্রসারে ‘গ্রীন ব্রিকস্ কনভেনশন-২০১৬’ আয়োজন করে। এরই ধারাবাহিকতায় চলতি বছরেও বিআইএফএফএল গ্রীন করভেনশন এন্ড এক্সপো-২০১৭’ আয়োজন করে।

সেমিনারে আয়োজিত প্লেনারী ডিস্কাশনে দেশের খ্যাতনামা পরিবেশবিদগণ, উন্নয়ন সহযোগী, ব্যাংকার ও উদ্দ্যোক্তাগণ অংশগ্রহণ করেন। সম্মেলনটি অংশগ্রহণকারীদের জন্য বিশ্বসেরা অনুশীলন উপস্থাপনের মাধ্যমে দেশে সবুজ আন্দোলন ত্বারান্বিত করার প্ল্যাটফর্ম তৈরী করেছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেন, দেশের শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলো পরিবেশবান্ধব করতে সরকারিভাবে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পরিবেশবান্ধব অবকাঠামো গড়তেও সহায়তা দিচ্ছে সরকার।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির বলেন, পরিবেশবান্ধব শিল্প গড়ে তুলতে ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের উৎসাহিত করা হচ্ছে। এরই মধ্যে আটটি ক্যাটাগরিতে ৫২টি পরিবেশবান্ধব পণ্যের খাত চিহ্নিত করা হয়েছে।

বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর চিমিয়াও ফান বলেন, কৃষিভিত্তিক অর্থনীতি থেকে বাংলাদেশ এখন শিল্পনির্ভর দেশের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। পরিবেশবান্ধব এবং টেকসই উন্নয়নে বাংলাদেশকে বিশ্বব্যাংক সহায়তা করে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইকোনমিক রিলেশন্স ডিভিশনের (ইআরডি) সচিব কাজী শফিকুল আজম। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ সেন্টার ফর অ্যাডভান্সড স্টাডিজের নির্বাহী পরিচালক ড. আতিক রহমান।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন এডিবির বিকল্প নির্বাহী পরিচালক মাহবুব আহমেদ, জাইকার প্রধান প্রতিনিধি তাকাতোসি নিশিকাতা, অর্থ সচিব ও বিআইএফএফএলের চেয়ারম্যান মুসলিম চৌধুরী, ঢাকায় নিযুক্ত চীনের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর লি গুয়ানজুন প্রমুখ।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফাইন্যান্স ফান্ড লিমিটেড (বিআইএফএফএল) আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বিআইএফএফএল’র নির্বাহী পরিচালক এসএম ফরমানুল ইসলাম বলেছিলেন, দেশের ভারসাম্যপূর্ণ অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্যে পরিবেশ বান্ধব শিল্প ও অবকাঠামো নির্মাণ গুরুত্বপূর্ণ। উন্নয়ন যেন টেকসই হয়, শিল্পায়ন যেন টেকসই হয়; এজন্য সবুজ শিল্পায়নের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। সরকার থেকে ব্যাংকগুলোকে সবুজ শিল্পায়নে অর্থ বিনিয়োগ করার পরামর্শ দিয়েছেন। আমাদের উন্নয়ন হবে টেকসই উন্নয়ন, পরিবেশবান্ধব সবুজ উন্নয়ন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, মেলার প্রথমদিন দেশ বিদেশের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে জাতীয় কনভেশন অনুষ্ঠিত হবে। এরপর বিভিন্ন দেশের ২৫ জন পরিবেশ বিশেষজ্ঞ, পলিসি মেকার, শিক্ষাবিদ ও ব্যাংকারদের নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

সম্পাদনা: আরএ/আরবি/এসএ

মন্তব্য