আমাদের মেইল করুন dhunatnews@gmail.com
বন্যা কবলিত প্রতি জেলায় হচ্ছে ৫০০ ঘর

দেশে চলতি বছরে দুই দফায় বন্যায় মোট ৩৫টি জেলা আক্রান্ত হয়েছে। এতে জনজীবনে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। পাশাপাশি অনেক পরিবার গৃহহীন হয়ে পড়েছে। এমতাবস্থায়, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত জেলাসমূহের গৃহহীনদের দুভোগ লাঘবে সরকার ঘর নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এজন্য প্রতিটি জেলা থেকে ৫০০ গৃহহীন মানুষের তালিকা তৈরির নির্দেশ দিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ঘর নির্মাণের উদ্যোগ নিয়ে সম্প্রতি মন্ত্রণালয় সকল বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকদের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মোহাম্মদ হোসেন স্বাক্ষরিত পাঠানো নির্দেশনায়, প্রকৃত গৃহহীণদের তালিকা তৈরি বরে আগামী ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে জরুরি ভিত্তিতে মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে বলা হয়েছে।

নির্দশনায় বলা হয়েছে, চলতি বছরে দুই দফায় ৩৫ জেলা বন্যা আক্রান্ত হয়েছে। এতে  জনজীবনে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার পাশাপাশি অনেক পরিবার গৃহহীন হয়ে পড়েছে। ‘দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় হতে মানবিক সহায়তা কর্মসূচি বাস্তবায়ন নির্দেশিকা ২০১২-১৩ অনুয়ায়ী প্রতিবছর সকল উপজেলায় ঢেউটিন ও গৃহনির্মাণ মঞ্জুরি বরাদ্দ করে আসছে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত জেলাসমূহের গৃহহীনদের দুর্যোগ লাঘবে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় ঘর নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। তাছাড়া, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে কোনো মানুষ গৃহহীন থাকবে না।

মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে আরো বলা হয়েছে, বন্যা কবলিত এলাকায় প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ঘর নির্মাণ করে দেয়া হলে তা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে সহায়ক হবে। ক্ষতিগ্রস্ত জেলাসমূহের প্রকৃত গৃহহীনদের ঘর নির্মাণের লক্ষ্যে তালিকা প্রণয়নের ক্ষেত্রে গৃহহীন মক্তিযোদ্ধা, গৃহহীন বয়স্ক কৃষক এবং বিধবা ও প্রতিবন্ধীদের অগ্রাধিকার প্রদান করতে হবে বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে।

নির্দেশনায়, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত নিজ নিজ জেলাসমূহের প্রতিটি জেলায় (কমপক্ষে ৫০০টি) প্রকৃত গৃহহীণদের তালিকা আগামী ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে জরুরি ভিত্তিতে মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে বলা হয়েছে।

সম্পাদনা: আরএ/জেডএইচ/এমএন

মন্তব্য