আমাদের মেইল করুন dhunatnews@gmail.com
বিক্রি হচ্ছে ৩৯তলা ভবন!

জমিসহ ৩৯তলা একটি ভবন অনলাইনে বিক্রি করা হবে। ভবনটির উচ্চতা ১৫৬ মিটার। ভবনটির ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছে ৫৫ কোটি ৩০ লাখ ইউয়ান (প্রায় ৮ কোটি ৪০ লাখ ডলার)। তবে ৩৯তলা ভবনটি বাংলাদেশে নয়, চীনের শানজি প্রদেশের উত্তরাঞ্চলের তাইইউয়ানে অবস্থিত। ভবনটি বিক্রির জন্য আসছে নতুন বছর ২০১৮ সালের প্রথম মাস ২ জানুয়ারি একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হবে। তহবিল-সংকটের কারণে নির্মাণকাজ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ভবনটি বিক্রি করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। আগ্রহী ব্যক্তিরা অনলাইনেই ভবনটি নিলামের মাধ্যমে কেনার সুযোগ পাবেন। চীনের স্থানীয় আদালত এই নিলামের তত্ত্বাবধান করবেন।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে এ তথ্য জানিয়ে বলা হয়েছে, ই-কমার্স ওয়েবসাইট আলিবাবার আরেক প্ল্যাটফর্ম তাওবাও-এ ভবনটি কেনার সুযোগ মিলবে। তাওবাও-এ চীনের সব আদালতের অ্যাকাউন্ট খোলা আছে। দেশটিতে বিচারিক নিলাম প্রক্রিয়া এখন অনলাইনেই হচ্ছে। এরই মধ্যে জব্দ হওয়া অ্যাপার্টমেন্ট, গাড়ি, অলংকার ও মোবাইল ফোন ই-কমার্স ওয়েবসাইটে নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করা হচ্ছে।

খবরে আরও বলা হয়েছে, ২০০৬ সালে ৩৯তলা ভবনটির নির্মাণকাজ শুরু হয়। ভবনটির উচ্চতা ১৫৬ মিটার। এর সব কটি তলার মোট আয়তন ৭৬ হাজার বর্গমিটার।

চীনের সংবাদ সংস্থা সিনহুয়া ২৬ ডিসেম্বর, সোমবার জানিয়েছে, মূলত হোটেল তৈরির জন্য ভবনটি নির্মাণ করা হচ্ছিল। কিন্তু একপর্যায়ে তহবিল-সংকটের কারণে নির্মাণকাজ বন্ধ হয়ে যায়। পরে ২০১০ সালে ভবনটির নির্মাণকাজ শেষ হয়।

নিলামের আগে চীনের আদালতে এই ভবনের কিছু ছবি প্রকাশিত হয়েছে। সেসব ছবিতে দেখা গেছে, ভবনটির মেঝে ধুলোয় ভরা। চারপাশে নির্মাণসামগ্রী রাখা। ভবনটির অনেক কাজ এখনো বাকি রয়েছে।

উল্লেখ্য, অনলাইনে ভবন বিক্রির ঘটনা এটিই প্রথম নয়। গত নভেম্বর মাসে চীনের ঝেজিয়াং প্রদেশে ২৮তলা একটি ভবন অনলাইনে নিলামের জন্য তোলা হয়েছিল। কিন্তু সেই নিলামে কেউ অংশই নেয়নি।

সম্পাদনা: জেডএইচ/এমএন/আরএ

মন্তব্য