আমাদের মেইল করুন abasonbarta2016@gmail.com
ঘোষণা
আবাসন সম্পর্কিত যেকোনো নিউজ পাঠাতে পারেন আমাদের এই মেইলে- abasonbarta2016@gmail.com
জেনে নিন ফ্লাট কেনার জন্য আলাদা যা যা খরচ পড়বে

আলাদা ভাবে শুধু সাব কাবলা দলিল এর জন্য স্টাম্প স্টাম্প শুল্কঃ , রেজিষ্ট্রেশন ফি , স্হানিয় সরকার কর, উৎস কর (৫৩ এইচ), ২০০ টাকার স্টাম্পে হলফনামা, ই-ফি ১০০ টাকা, এন-ফি-দলিলের প্রতিটি ৩০০ শব্দের দুই পৃষ্টার অতিরিক্ত প্রতি পৃষ্টার জন্য ৪০ টাকা হারে ও সম্পত্তি হস্তান্তর নোটিশের আবেদনপত্রে ১০ টাকা মূল্যের কোর্ট ফি লাগবে। সাব কবলা দলিলঃ রেজিস্ট্রেশন ফিঃ হস্তান্তরিত সম্পত্তির দলিলে লিখিত মোট মূল্যের ২% টাকা, স্টাম্প শুল্কঃ হস্তান্তরিত সম্পত্তির দলিলে লিখিত মোট মূল্যের ৩% টাকা (১৮৯৯ সালের স্টাম্প আইনের ২৩ ধারা মতে)।দলিলে সর্বোচ্চ ১২০০ টাকার নন-জুডিসিয়াল স্টাম্প ব্যবহার করা যাবে। স্হানিয় সরকার করঃ হস্তান্তরিত সম্পত্তির দলিলে লিখিত মোট মূল্যের ৩% টাকা সংশ্লিষ্ট দপ্তরের হিসাব নম্বরে পে-অর্ডারের মাধ্যমে জমা করতে হবে। উৎস কর (৫৩ এইচ)ঃ ঢাকার গুলশান মডেল টাউন, বনানী, বারিধারা, মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা ও দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকায় আবাসিক ভবনের ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনে প্রতি বর্গমিটারে এক হাজার ৬০০ টাকা ও বাণিজ্যিক ফ্ল্যাটের ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন ফি প্রতি বর্গমিটারে ছয় হাজার টাকা দিতে হবে। এ ছাড়া ধানমণ্ডি আবাসিক এলাকা, ডিওএইচএস, মহাখালী, লালমাটিয়া হাউজিং সোসাইটি, উত্তরা মডেল টাউন, বারিধারা আবাসিক এলাকা, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট এলাকা, কারওয়ান বাজার বাণিজ্যিক এলাকা ও চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ আবাসিক এলাকা, খুলশী আবাসিক এলাকা, আগ্রাবাদ ও নাসিরাবাদে আবাসিক ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনে প্রতি বর্গমিটারে দেড় হাজার টাকা বাণিজ্যিক ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনে দিতে হবে পাঁচ হাজার টাকা প্রতি বর্গমিটারে। আর ঢাকার দুই সিটি ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনভুক্ত অন্য এলাকায় বাণিজ্যিক ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনে প্রতি বর্গমিটারে কর দিতে হবে সাড়ে তিন হাজার টাকা করে। এ ছাড়া ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনভুক্ত অন্যান্য এলাকায় আবাসিক ফ্ল্যাট ও প্লট রেজিস্ট্রেশনে প্রতি বর্গমিটারে এক হাজার অন্য সিটি করপোরেশনভুক্ত এলাকায় প্রতি বর্গমিটারে ৭০০ টাকা এবং দেশের অন্য এলাকায় প্রতি বর্গমিটারে ৩০০ টাকা করে কর দিতে হবে।

মন্তব্য