আমাদের মেইল করুন dhunatnews@gmail.com
গুলশানে দুদকের হস্তক্ষেপে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

অবৈধ নির্মাণকাজে হস্তক্ষেপ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তাদের হস্তক্ষেপে রাজধানীর গুলশানে অভিযান চালিয়ে একটি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। রোববার দুদক এ অভিযান চালায়। দুদকের জনসংযোগ বিভাগ প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

গুলশানের নিকেতন এলাকার একটি প্লটে রাজউকের নকশাবহির্ভূতভাবে ভবন নির্মাণকাজ চলছে—এমন অভিযোগে আজ রোববার নির্মাণস্থলে অভিযান চালায় দুদক। সহকারী পরিচালক রতন কুমার দাসের নেতৃত্বে রাজউকের অথরাইজড অফিসার মো. আদিলুজ্জামান ও পুলিশসহ ছয় সদস্যের একটি দল অভিযানে অংশ নিয়ে ওই অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে।

দুদক জানায়, গুলশানের নিকেতন আবাসিক এলাকার ডি ব্লকের ১০/২ নম্বর সড়কের ১০২ নম্বর প্লটে নির্মাণকাজ চলছিল। ১০তলা ফাউন্ডেশনের প্লটটিতে রাস্তার জন্য ৪ দশমিক ১ ফুট জায়গা ছাড়ার কথা থাকলেও মাত্র এক ফুট জায়গা ছেড়ে বাকি ৩ দশমিক ১ ফুট অবৈধ দখল করেছিলেন প্লটের মালিক। এই অবৈধ দখল ছাড়তে রাজউক ১৬ জুলাই নোটিশ দিলেও প্লট মালিক হোসাইন আহমদ রাজউকের নোটিশ অমান্য করে নির্মাণকাজ অব্যাহত রাখেন।

দুদকের হস্তক্ষেপে রোববার তাৎক্ষণিকভাবে বিধিবহির্ভূত এই নির্মাণকাজ বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং অবৈধ একটি পিলারের অংশ ভেঙে ফেলা হয়। অবশিষ্ট অংশ রাজউক কর্তৃপক্ষ দ্রুতই বুলডোজার দিয়ে ভেঙে ফেলবে বলে জানান রাজউকের অথরাইজড কর্মকর্তা প্রকৌশলী আদিলুজ্জামান।

এ প্রসঙ্গে দুদকের এনফোর্সমেন্ট অভিযানের সমন্বয়কারী দুদকের মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, আইন অমান্য করে ভবন নির্মাণ একপ্রকার দুর্নীতি। এটি রাজউকের দুর্বলতা। দুদক হস্তক্ষেপের মাধ্যমে গভর্নেন্সের মান উন্নত করতে চায়।

মন্তব্য