আমাদের মেইল করুন dhunatnews@gmail.com
মধ্যবিত্তের ফ্ল্যাট মিরপুরে, মিলছে ৫০ লাখে

রাজধানীতে এক চিলতে মাথা গোজার ঠাঁইয়ের দর দিনদিন বেড়েই চলেছে। মানুষের আয় বাড়লেও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে ফ্ল্যাট, বাড়ি বা একটুখানি নিজের আবাসের স্বপ্ন যেন অধরাই থেকে যাচ্ছে। অনেকটা নুন আনতে পান্তা ফুরানোর জোগাড়।

অভিজাত এলাকাগুলোর দিকে নজর দিতেই পারেন না বেশিরভাগ মানুষ। আর নিম্নবিত্তের চোখ তো নিচ থেকে ওপরে তোলাই রীতিমত সাহসের ব্যাপার।

এদিক থেকে সুবিধা আছে কিছুটা মধ্যবিত্তের। এখনও তাদের জন্য রাজধানীর কিছু এলাকায় তৈরি হচ্ছে ফ্ল্যাট।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) আয়োজিত রিহ্যাব মেলায় গিয়ে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

বিভিন্ন ডেভেলপার কোম্পানি এখানে নানা রকম অফার নিয়ে স্টল সাজিয়েছে। তারা বলছে, অভিজাত এলাকাগুলোয় ফ্ল্যাটের দাম কোটি টাকার ওপরে। তবে মধ্যবিত্তদের জন্য আছে মিরপুর, খিলগাঁও ও গোপীবাগের মতো এলাকায় ফ্ল্যাট।

কোম্পানিগুলো মধ্যবিত্তের জন্য ৫০ লাখের কমেও ফ্ল্যাট দিচ্ছে। এক্ষেত্রে ৯শ’ থেকে ১১শ’ বর্গফুটের ফ্ল্যাট রয়েছে।

মাস্টার বিল্ডার লিমিটেডের সেলস এক্সিকিউটিভ আলাউদ্দীন জানান, মেলা উপলক্ষে তারা ১০ শতাংশ ছাড় দিচ্ছেন। তাদের সব রেডি ফ্ল্যাট।

মিরপুর-১ নম্বরে চিড়িয়াখানা রোডে ৮শ’ থেকে ১১শ’ বর্গফুটের তাদের ফ্ল্যাটের দাম বর্গফুট প্রতি ৩ হাজার ৬শ’ টাকা। পূর্ব কাফরুলের বর্গফুট প্রতি ফ্ল্যাটের দাম ৫ হাজার টাকা। এছাড়া মাটিকাটায় ৬ হাজার টাকা প্রতি বর্গফুট মূল্যের ফ্ল্যাট দিচ্ছে তারা। এক্ষেত্রে ২০ লাখ টাকা ডাউন পেমেন্ট দিতে হবে।

পারটেক্সের ম্যানজার মো. সায়েম খন্দকার বলেন, হাতিরঝিলে ১৩ থেকে ১৫শ’ বর্গফুটের ফ্ল্যাটে বর্গফুট প্রতি দাম ধরেছেন ১১ হাজার ২শ’ টাকা, বানানীতে ১৩শ’ বর্গফুটের ফ্ল্যাটে প্রতি বর্গফুটে ১৮ হাজার ৫শ’ টাকা, উত্তরায় ৮শ’ বর্গফুটের প্রতি ২১ থেকে ২২ হাজার টাকা আর খিলগাঁও এবং গোপীবাগে ৪ হাজার ৮শ’ টাকা থেকে ৫ হাজার ৫শ’ টাকা প্রতি বর্গফুটের দাম ধরেছেন। এ দুই এলাকায় ফ্ল্যাট আছে ১১শ’ থেকে ১৩শ’ বর্গফুটের।

মেলায় আগত ক্রেতা-দর্শনার্থীরা বলছেন, ছোট আকারের ফ্ল্যাটের প্রতিই আগ্রহ বেশি। যেহেতু সাধ্যের মধ্যে পরিকল্পনা তাই অনেকেই খুঁজছেন মিরপুর, খিলগাঁও ও বাসাবোর দিকেই। তবে অভিজাত এলাকার চাহিদা যে কম তাও নয়।

ব্যবসায়ী আরমান হোসেন বলেন, অর্ধ কোটি পর্যন্ত সাহস করা যায়। ছোট একটা দোকান চালিয়ে যে টাকা জমিয়েছি, তাতে ডাউন পেমেন্ট দিয়ে চলতে পারবো। এক্ষেত্রে ৫০ লাখ টাকার বেশি হলে পারা যাবে না।

উত্তরার ফ্ল্যাটের খোঁজ করছিলেন চৌধুরী রুকনুজ্জামান বলেন, সবই তো কোটি টাকার ওপরে। দেখি কি করা যায়। তিনি মনে করেন, ব্যাংক ঋণ আরও সহজ হওয়া উচিত।। বাংলানিউজ

মন্তব্য