আমাদের মেইল করুন abasonbarta2016@gmail.com
সব ব্যাংকের ঋণের সুদের হার এক অঙ্কে নামবে শিগগিরই

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, ২১টি ব্যাংক ঋণের সুদের হার এক অঙ্কে নামিয়ে এনেছে। বাকি ব্যাংকগুলোর সঙ্গেও আলোচনা চলছে। অল্প সময়ের মধ্যে সমাধান আসবে। দীর্ঘদিনের ঋণখেলাপির সংস্কৃতিতে থেকে বেরিয়ে আসারও আশ্বাস দেন তিনি।

আজ রোববার জাতীয় সংসদে ৭১ বিধিতে আনা এক নোটিশের জবাবে অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন।

বিরোধী দলরে সদস্য মসিউর রহমান ৭১বিধিতে আনা নোটিশে বলেন, ব্যাংক ঋণের সুদরে হার এক অঙ্কে নামানোর কথা থাকলেও এখনো তা হয়নি। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তিনি অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।
জবাবে অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল বলেন, ২০১৮ সালে প্রধানমন্ত্রী সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে আলাপ করে ব্যাংক ঋণের সুদের হার এক অঙ্কের ঘরে নামিয়ে আনার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক এবং অর্থ মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন। এর ফলে ইতিমধ্যে দেশের ২১টি ব্যাংক ঋণের ওপর সুদহার এক অঙ্কের ঘরে তথা শতকরা ৯ ভাগে নামিয়ে এনেছে। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক অন্য সব ব্যাংকের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। আশা করা যাচ্ছে বাকি ব্যাংকগুলোও ঋণের সুদহার অল্প সময়ের মধ্যে এক অঙ্কের ঘরে নামিয়ে আনতে সক্ষম হবে।

মুস্তফা কামাল বলেন, ‘ব্যাংক ঋণে উচ্চ হারে সুদ আমাদের অর্থনীতিতে দীর্ঘকাল ধরে একটি নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে আসছে। ব্যাংক ঋণের সুদের হার একটি গ্রহণযোগ্য এবং ব্যবসাবান্ধব পর্যায়ে নিয়ে আসার জন্য সরকার বদ্ধপরিকর।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ব্যবসা বান্ধব একটি সরকার। আমরা ব্যবসায়ীদের বিপক্ষে না। ব্যবসায়ীরা যদি ব্যবসা না করতে পারে, আমাদের কর্মসংস্থান কোথা থেকে আসবে? দারিদ্র্য বিমোচন কীভাবে হবে? সেই কাজগুলো করার জন্য তাদের (ব্যাংক মালিকদের) সঙ্গে বারবার বসছি। আমি আশ্বস্ত করছি অতি শিগগিরই ফলপ্রসূ অবস্থা দেখতে পাবেন।’
অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, তাঁরা ঘোষণা দিয়েছেন, ক্লাসিফায়েড ঋণের পরিমাণ আর বাড়বে না। ঋণখেলাপির সংস্কৃতি দীর্ঘকাল ধরে চলে আসছে। তিনি আশ্বস্ত করতে পারেন, সেই সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসা হবে। ঋণের পরিমাণ বাড়বে না। প্রথম আলো

শেয়ার করুন