আমাদের মেইল করুন abasonbarta2016@gmail.com
ডিসেম্বরেই বসবাস উপযোগী রাজউকের পূর্বাচল প্রকল্প

চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে বসবাস উপযোগী হচ্ছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্প। দেশের অন্যতম সেরা এ স্যাটেলাইট সিটির ভবনের নকশা অনুমোদনও শুরু করেছে সংস্থাটি। প্রকৌশলগত কোনো ত্রুটি না থাকলে মাত্র ২০ দিনের মধ্যেই নকশার অনুমতি মিলবে। গতকাল শনিবার পূর্বাচলের নতুন শহর প্রকল্প এলাকার অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে এসব মন্তব্য করেছেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

রাজউক সূত্র জানায়, পুরো প্রকল্পের ভূমি উন্নয়ন সাড়ে ৮৫ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। বাকি সাড়ে ১৪ শতাংশ কাজ চলতি বছরের জুনে শেষ হবে। সব মিলিয়ে ৩১৯ কিলোমিটার রাস্তা ও ড্রেনের মধ্যে প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ শেষ করেছে রাজউক। বাকি রাস্তা এ বছরের শেষ নাগাদ সম্পন্ন হবে। ঢাকার সঙ্গে পূর্বাচল প্রকল্পের বাসিন্দাদের যোগাযোগব্যবস্থা সহজতর করতে চার লেনবিশিষ্ট দুটি সড়কের কাজও শেষ হয়েছে। এ ছাড়া পূর্বাচল প্রকল্পের ৩০টি সেক্টরের ৬৫টি সেতুর মধ্যে ৩৬টির কাজ শেষ হয়েছে এবং ২৪টির কাজ চলমান রয়েছে। বাকি পাঁচটি সেতু ঢাকা বাইপাস সড়কের মধ্যে থাকায় আলাদা করে বানানোর প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছে রাজউক। ৪৮ কিলোমিটার লেক ও খালের কাজের অগ্রগতি কিছুটা মন্থর হলেও ডিসেম্বরের মধ্যেই পুরো কাজ সম্পন্ন হবে। পূর্বাচল প্রকল্পের অভ্যন্তরে স্কুল-কলেজ, সৌন্দর্যবর্ধন এবং অন্যান্য অবকাঠামোর দৃশ্যমান অগ্রগতি হয়েছে বলে দাবি করেন রাজউক কর্মকর্তারা। ৩০ সেক্টরের মধ্যে ২০টি সেক্টরে বসানো হয়েছে বিদ্যুতের খুঁটি।

পূর্বাচলে প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন শেষে কোনো কোনো কাজে অসন্তোষ প্রকাশ করলেও চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকল্প বসবাস উপযোগী করার ঘোষণা দেন মন্ত্রী। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়ে রেজাউল করিম বলেন, ‘পূর্বাচল প্রকল্প নিয়ে বেশ কয়েকটি মামলা ছিল। তবে সার্বিক বিবেচনায় ডিসেম্বরের মধ্যে বসবাস উপযোগী হবে প্রকল্পটি। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ না করে ব্যয় বাড়ালে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে।’

প্রকল্প এলাকায় পানি সরবরাহের অগ্রগতি সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, ‘নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে আইনগত সব কাজ শেষ হয়েছে। কয়েক দিনের মধ্যেই চুক্তি হবে। ডিসেম্বরের আগেই পানি সংযোগ দেওয়া হবে।’

রাজউকের পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পের প্লট হস্তান্তরের অগ্রগতি সম্পর্কে রাজউকের চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান বলেন, ‘প্রকল্পে ২৫ হাজার ১৬টি প্লটের মধ্যে ১৫ হাজারের দখল হস্তান্তর করা হয়েছে। বাড়ি বানানোর জন্য ২০০টি নকশার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। বাকি প্লটের মালিকানা হস্তান্তরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।’ কালের কণ্ঠ

শেয়ার করুন