আমাদের মেইল করুন abasonbarta2016@gmail.com
ঘোষণা
আবাসন সম্পর্কিত যেকোনো নিউজ পাঠাতে পারেন আমাদের এই মেইলে- abasonbarta2016@gmail.com
গোপন অনুসন্ধানে রাজউক!

নকশা বহির্ভূত অবৈধ ভবন চিহ্নিতকরণে গোপন অনুসন্ধানে নেমেছে রাজউক। রাজউকের নির্ধারিত নকশার বাইরে যারা ভবন নির্মাণ করেছে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নিয়ে রাজউকের এ উদ্যোগ। যদিও আজ থেকে নগরীতে রাজউকের ২৪টি টিম কাজ করবে অবৈধ ভবন চিহ্নিতকরনের কাজে। রাজউক সূত্র জানায়, নির্ধারিত ২৪টি টিমের বাইরে একটি গোপন দল নগরীজুড়ে অবৈধভাবে নির্মিত ভবন চিহ্নিতকরণের কাজে নিয়োজিত থাকবে। আর এ টিমের সরাসরি তদারকি করবেন গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করীম এবং রাজউক চেয়ারম্যান।

দীর্ঘদিন ধরেই রাজউকের একশ্রেণীর দুর্নীতিপরায়ণ কর্মকর্তা ও কর্মচারীর যোগসাজশে একটি স্বার্থান্বেষী মহল নির্ধারিত নকশার বাইরে সুউচ্চ কিংবা সাধারণ ভবন নির্মাণ করছে। যদিও সবগুলো সরকারের সময় বিষয়গুলো রাজউকের নজরে আনা হলেও কোন এক অজ্ঞাত কারণে তা বাস্তবায়ন করা যায়নি। অদ্যাবধি যতগুলো বড় বড় দুর্ঘটনা সংগঠিত হয়েছে তাতে পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, রাজউকের কতিপয় কর্মকর্তার যোগসাজসেই নগরজুড়ে অবৈধভাবে নির্মিত ভবনগুলোই এর জন্য দায়ী। নগর পরিকল্পনাবীদরা বিভিন্ন সময় এনিয়ে সমীক্ষা করে সরকারের কাছে প্রতিবেদন জমাও দিয়েছে। কিন্তু এতে করে কোন কাজের কাজ হয়নি। উপরন্তু আর্থিক উৎকোচ নিয়ে রাজউক কর্মকর্তারা সেগুলোকে বৈধতা দিয়েছেন। এবিষয়ে গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করীম জানান, দীর্ঘদিনের জঞ্জাল দূর করার অভিযানে নেমেছি আমরা। যদিও এ কাজটি খুবই দুরুহ। কারণ সুউচ্চ ভবনগুলোর মালিকেরা সমাজের একটি শক্তিশালী অংশ। তদুপরি সরকার এ ব্যাপারে বিন্দুমাত্র ছাড় দেবে না।

মন্ত্রী জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুস্পষ্ট নির্দেশনা পেয়েছি। রাজউক থেকে ২৪টি টিম নগরীতে অভিযান চালিয়ে এসব অবৈধ ভবনের তালিকা জমা দেবে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে। তালিকা হাতে পাওয়ার পরই আমরা নামবো অভিযানে। এছাড়াও গোপন একটি টিম এসব ভবন চিহ্নিতকরণের কাজে নামবে। তারাও পৃথকভাবে আমাদের কাছে প্রতিবেদন জমা দেবে। সবকিছু পর্যালোচনা করে শক্ত হাতেই আমরা সবকিছু মোকাবিলা করতে সক্ষম হবো। বাংলা ইনসাইডার