আমাদের মেইল করুন abasonbarta2016@gmail.com
সড়ক দখল করে ভবন নির্মাণ, অশেষ ভোগান্তি
রাজধানীর কয়েকটি ভবনে সম্প্রতি অগ্নিকাণ্ডের পর ভবন নির্মাণে নানা ত্রুটি অনুসন্ধানে মাঠে নেমেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ রাজউক। এক্ষেত্রে দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীর সড়ক দখল করে যখন তখন ভবন নির্মাণের কাজ করা হলেও সংশ্লিষ্ট ভবন মালিকদের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের ব্যবস্থা নিচ্ছে না রাজউক। ফলে যে যার ইচ্ছেমত সড়ক দখল করে দিনের পর দিন ভবন নির্মাণের কাজ করছে। এতে পথচারিদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রাজধানীতে ভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে বাড়িওয়ালারা কোনো নিয়ম-নীতি তোয়াক্ক করছে না। রাস্তার ওপর নির্মাণসামগ্রী রেখে দেদারছে বাড়ীর কাজ চালিয়ে যাচ্ছে তারা। ফলে নগরবাসীর পথ চলাচলের আরেক যন্ত্রণার নাম হচ্ছে ভবন নিমার্ণের ক্ষেত্রে রাস্তার ওপর নির্মাণসামগ্রী রেখে কাজ করা। এতে জন ও যান চলাচলে যেমনি ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে তেমনি দেখা দিচ্ছে তীব্র যানজট। এমন অভিযোগ নগরবাসীর।
জানা গেছে, রাজধানীতে জনসংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি এক তলা বাড়ি এখন বহুতল আবাসিক ও বাণিজ্যিক ভবনে পরিণত হচ্ছে। আর এসব ভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে নির্মাণসামগ্রী রাখার জন্য সংশ্লিষ্টদের পর্যাপ্ত জায়গা নেই। ফলে রাস্তায় ইট, বালুসহ সকল প্রকার নির্মাণসামগ্রী রাখা হচ্ছে। এমনকি রাস্তা বা গলির ওপর রড কাটা ও সোজা করাসহ ভবন নির্মাণের সকল প্রস্তুতিও নেয়া হচ্ছে এখানে। এছাড়া, সাবসময় ইট ভাঙ্গা এবং মিকচার মেশিনের শব্দদূষণের কারনে হার্টব্লকসহ দেখা দিচ্ছে নানা রোগ ব্যধি। অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে রাজউক ও ডিসিসি এ বিষয়ে দেখা শোনার কথা বলা হলেও তারা তা দেখেও না দেখার ভান করছে। যদিও কারো বিরুদ্ধে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে যায় তাহলে কিছু টাকা দিলে ছেড়ে দেয়া হয়। এর ফলে প্রতিনিয়ত নগরীর রাস্তা দখল করে ভবন নির্মাণের কাজ আরো বেড়ে যাচ্ছে।
নগরবাসীর অভিযোগ, এমনিতেই রাস্তার স্বল্পতা, স্বল্প প্রশস্ত ও ভাঙাচোরা হওয়ায় পথচারীদের দুর্ভোগের সীমা থাকে না। সে সঙ্গে নির্মাণাধীন ভবনের মালামাল রাখা ও রাস্তার ওপর কাজ করায় চলাচলে পড়তে হচ্ছে সীমাহীন ভোগান্তিতে। জানা গেছে, রাস্তার ওপর নির্মাণসামগ্রী রেখে ভবনের কাজ করা  এখন অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। এতে সংশ্লিষ্টদের কাছে অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পাওয়া যায়না। বরং অভিযোগকারীকে পড়তে হচ্ছে নানা সমস্যায়। সরেজমিনে নগরীর রামপুরা, বাড্ডা, মগবাজারসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, শ্রমিকরা ভবন সংলগ্ন রাস্তায় নির্মাণসামগ্রী রেখে কাজ করছে। এছাড়া, বিভিন্ন কোম্পানিসহ ব্যক্তিগত অনেক ভবনের মালিক রাস্তার ওপর নির্মাণসামগ্রীসহ মিকচার মেশিন রেখে ভবনের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এতে দীর্ঘ সময় রাস্তা বন্ধ করে কাজ করায় পথচারীদের পড়তে হচ্ছে কঠিন ভোগান্তিতে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দের সাথে কথা বললে তারা  জানান, জায়গা স্বল্পতার কারণে বাধ্য হয়ে সড়ক দখল করে ভবন নির্মাণের কাজ করতে হচ্ছে। তবে নিচ তলার কাজ শেষ হলে ভবনের ভেতর কাজ করা যাবে। এসব বিষয় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি ডেভেলপার কোম্পানির এমডি জানান, ভবন নির্মাণ করার সময় পর্যাপ্ত জায়গা না থাকায় রাস্তার উপর অনেক সময় কাজ করতে হচ্ছে। তবে একতলা হয়ে যাওয়ার পর এ সমস্যা আর থাকে না। এছাড়া আমরা সব সময় রাজউক ও ডিসিসির আইন মেনে কাজ করার চেষ্টা করি।
রাজউকের চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বলেন, রাস্তা করা হচ্ছে পথচারী ও যানবাহন চলাচলের জন্য। এখানে ভবনের মালামাল রাখা বা কাজ করার কোনো বিধান নেই। তবে এবিষয়ে অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে আমরা আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নিচ্ছি। ইতিমধ্যে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে এবং অনেকের জরিমানাও করা হয়েছে বলে জানান তিনি। কেউ যাতে সড়ক দখল করে ভবন নির্মাণের কাজ কর্ম করতে না পারে সে বিষয়ে আরো কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন