আমাদের মেইল করুন abasonbarta2016@gmail.com
ঘোষণা
আবাসন সম্পর্কিত যেকোনো নিউজ পাঠাতে পারেন আমাদের এই মেইলে- abasonbarta2016@gmail.com
অনলাইনে ৪০ তলা বাড়িটি বিক্রি হলো ৬ হাজার ২০০ কোটি টাকায়

বাড়ি কিনতে হলে ক্রেতারা সাধারণত নিজে উপস্থিত থেকে সবকিছু যাচাই-বাছাই করেই কেনেন। তবে চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে এবার ৪০ তলা একটি ভবন অনলাইনে বিক্রি হয়েছে। আজ মঙ্গলবার নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করা হয়েছে ভবনটি। বাংলাদেশি মুদ্রায় সেটি বিক্রি হয়েছে ৬ হাজার ২০০ কোটি টাকারও বেশি দামে!

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০০৮ সালের অলিম্পিক ভেন্যু বার্ডস নেস্টের পাশেই অবস্থিত এই ভবনটি। ৪০ তলা ভবনটির নাম পাঙ্গু প্লাজা। এক পলাতক চীনা ধনকুবেরের তৈরি বাড়িটি চীনা অনলাইন ওয়েবসাইট আলিবাবায় নিলামে তোলা হয়। নিলামে তোলার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই বিপুল অঙ্কের অর্থ দিয়ে বাড়িটি কিনে নিয়েছে চীনের এক প্রতিষ্ঠান।

১ লাখ ৪৫ হাজারের বেশি মানুষ এই নিলামে চোখ রেখেছিলেন। কিন্তু নিলামে অংশ নেন মাত্র দুজন। শেষ পর্যন্ত ইউচেং ঝিয়ে নামের একটি কোম্পানি ৭৩৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলারে ভবনটি কিনে নেয়। বাংলাদেশি মুদ্রায় বাড়িটির বিক্রয়মূল্য দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ২০২ কোটি টাকারও বেশি।

অনেকটা ড্রাগনের আদলে তৈরি করা ভবনটির আসল মালিক চীনা ধনকুবের গুয়ো ওয়েঙ্গুই। দুর্নীতির দায়ে ২০১৪ সালে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। রায় হওয়ার পর থেকেই নিউইয়র্কে আত্মগোপন করে আছেন তিনি। ২০০২ সালে এই ৪০ তলা ভবনটি নির্মাণ করিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু পাঁচ বছর পরে অনিয়মের দায়ে ভবনটি বাজেয়াপ্ত করে বেইজিং মিউনিসিপ্যাল কর্তৃপক্ষ। পরে বেইজিংয়ের ডেপুটি মেয়র লিউ ঝিহুয়ার বিরুদ্ধে যৌন কেলেঙ্কারির অভিযোগ উঠলে বাড়িটির মালিকানা আবার ফেরত পান ওয়েঙ্গুই। কিন্তু ব্যাপক আকারের দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়ায় বাড়িটি ফের বাজেয়াপ্ত করা হয়।

৪০ তলা এই ভবনটি অনেক চলচ্চিত্রপ্রেমীর কাছে পরিচিতও ঠেকতে পারে। ২০১৪ সালে মুক্তি পাওয়া হলিউডের চলচ্চিত্র ‘ট্রান্সফর্মারস: এইজ অব এক্সটিংশন’-এর বেশ কয়েকটি দৃশ্যে দেখানো হয়েছিল এই ভবনটি। প্রথম আলো