আমাদের মেইল করুন abasonbarta2016@gmail.com
ঘোষণা
আবাসন সম্পর্কিত যেকোনো নিউজ পাঠাতে পারেন আমাদের এই মেইলে- abasonbarta2016@gmail.com
ধরা ছোঁয়ার বাইরে রাজউকের জালিয়াত চক্রের হোতারা

মামলার দশ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনো ধরা ছোয়ার বাইরে রাজউকের বাড্ডা প্রকল্পের প্লট জালিয়াত চক্রের মূল হোতারা। এরই মধ্যে মামলাটি মতিঝিল থানা থেকে হস্তান্তর করা হয়েছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডিতে। তবে জালিয়াতচক্রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে তদন্ত কমিটি কাজ করছে বলে জানিয়েছেন রাজউকের পরিচালক অলিয়ার রহমান।

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, রাজউকের প্রধান কার্যালয়ের এনেক্স ভবনের ৫১৪ নম্বর কক্ষটি ভাড়া নিয়ে সরকারি নথি চুরি, প্লট জালিয়াতিসহ নানা অপকর্ম করে আসছিল একটি চক্র।

এমন তথ্যের ভিত্তিতে গত ১৫ অক্টোবর রাজউক চেয়ারম্যানের নির্দেশে সংস্থার পরিচালক খন্দকার অলিয়ার রহমানের নেতৃত্বে  কক্ষটিতে অভিযান চালিয়ে জালিয়াতচক্রের সন্ধান পায় কর্তৃপক্ষ।

অভিযানের সময় কক্ষটি থেকে বাড্ডা পুনর্বাসন প্রকল্পের ক্ষতিগ্রস্তদের ৭০টি প্লটের নথি, রাজউকের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সিল, সিটি কর্পোরেশনের ভুয়া প্রত্যয়নপত্র উদ্ধার করা হয়। আটক করা হয় পারভেজ চৌধুরী নামে এক ব্যক্তিকে।

এ ঘটনায় মতিঝিল থানায় ঐদিনই একটি মামলা করে রাজউক। মামলায় আসামী করা হয় পারভেজ চৌধুরী, পিতা-মরহুম সৈয়দ আহমদ, মনির হোসেন, পিতা-সিরাজ মিয়া এবং জিন্নাহ এবং নাসিরকে।

রাজউকের এই জালিয়াত চক্রের মূলহোতা হিসেবে মনির হোসেন ওরফে গোল্ডেন মনিরের নাম আসে বিভিন্ন গণমাধ্যমে।মনির হোসেন ওরফে গোল্ডেন মনির বিএনপি-জামায়াত আমলে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি ইয়াজউদ্দিন আহমেদের ভাগ্নে পরিচয় দিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিপুল ধনসম্পদের মালিক হয় বলেও গণমাধ্যমে উঠে এসেছে।

এ বিষয়ে জানতে, মনির হোসেন ওরফে গোল্ডেন মনিরের উত্তরায় বহুতল শপিংমল জম জম টাওয়ারের অফিসে গেলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

তবে, রাজউকের অর্থ ও প্রশাসন বিষয়ক পরিচালক খন্দকার অলিয়ার রহমান জানান, জালিয়াত চক্রের বিরুদ্ধে অভিযানের পর সেটি অনুসন্ধানে ইতিমধ্যে তদন্ত কমিটি গঠন করাসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

এদিকে, জালিয়াত চক্রের বিরুদ্ধে করা মামলাটি এখন পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে মতিঝিল থানা পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

আর বিষয়টি তদন্তাধীন থাকায় কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি সিআইডি কোনো কর্মকর্তা। বাংলা টিভি

মন্তব্য