আমাদের মেইল করুন dhunatnews@gmail.com
ঘোষণা
আবাসন সম্পর্কিত যেকোনো নিউজ পাঠাতে পারেন আমাদের এই মেইলে- abasonbarta2016@gmail.com
রিহ্যাব মেলায় ফ্ল্যাট প্রকল্পের ছড়াছড়ি

তরুকাব্য নামে রাজধানীর শেওড়াপাড়ায় নতুন ফ্ল্যাট প্রকল্প তৈরি করছে র‌্যাংগস প্রপার্টিজ। সেখানে ১,৪৪৫ থেকে ১,৮৬০ বর্গফুট আয়তনের ১৫৪টি ফ্ল্যাট থাকবে। প্রকল্পটিতে উন্মুক্ত জায়গার পাশাপাশি সুইমিংপুল, ব্যায়ামাগার, ব্যাডমিন্টন কোর্ট, হাঁটার জায়গা ইত্যাদি সুযোগ-সুবিধা রাখা হবে। প্রকল্পটির নির্মাণকাজ শেষ হবে চার বছরের মধ্যে।

রিহ্যাবের শীতকালীন আবাসন মেলায় তরুকাব্য প্রকল্পের ফ্ল্যাট বিক্রি শুরু করেছে র‌্যাংগস প্রপার্টিজ। পাশাপাশি বারিধারা, গুলশান, বনানী, ধানমন্ডি, মিরপুর ও মোহাম্মদপুরের ইকবাল রোডে ১২টি ফ্ল্যাট প্রকল্প ও ৭টি বাণিজ্যিক প্রকল্প রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির। ৬৫০ বর্গফুট আয়তনের স্টুডিও ফ্ল্যাটও বিক্রি করছে তারা। ক্রেতারা ৪৫ লাখ টাকায় আসবাবসহ স্টুডিও ফ্ল্যাট কিস্তিতে কিনতে পারবেন বলে জানান র‌্যাংগস প্রপার্টিজের কর্মকর্তারা।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে গতকাল মঙ্গলবার পাঁচ দিনব্যাপী রিহ্যাব আবাসন মেলা শুরু হয়েছে। এবারের মেলায় ১৬০টি প্রতিষ্ঠানের মোট ২৩০টি স্টল রয়েছে। এর মধ্যে ১১৬টি আবাসন, ৩০টি নির্মাণসামগ্রী এবং ১৪টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর বেলা দুইটা থেকে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের জন্য মেলা খুলে দেওয়া হয়। সন্ধ্যার দিকে মেলায় ক্রেতা-দর্শনার্থীর ভিড় বেড়ে যায়।

র‌্যাংগস প্রপার্টিজের স্টলে প্রকল্পের নকশার ছবি তুলছেন একজন দর্শনার্থী।  ছবি: প্রথম আলো

র‌্যাংগস প্রপার্টিজের স্টলে প্রকল্পের নকশার ছবি তুলছেন একজন দর্শনার্থী।

এদিকে মেলায় র‌্যাংগসের মতো অনেক প্রতিষ্ঠানই বিক্রির জন্য তাদের নতুন ফ্ল্যাট প্রকল্প নিয়ে এসেছে। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে মূল্যছাড় দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানগুলো। সঙ্গে নানা রকমের পুরস্কার প্রদানের ঘোষণাও আছে। যেমন ফ্ল্যাট বুকিং দিলে গাড়ি দিচ্ছে ট্রপিক্যাল হোমস, ঘর সাজাতে দেড় থেকে দুই লাখ টাকার আসবাব দেবে নাভানা রিয়েল এস্টেট।  ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে মূল্যছাড় দিচ্ছে আবাসন প্রতিষ্ঠানগুলো। নানা রকমের পুরস্কারও আছে তাদের জন্য।

মেলায় নাভানা রিয়েল এস্টেট ৭০টি প্রকল্পের প্রায় ১ হাজার ২০০ ফ্ল্যাট বিক্রির জন্য নিয়ে এসেছে। এগুলোর মধ্যে মিরপুরে দুটি ও মোহাম্মদপুরে একটি কনডোমিনিয়াম প্রকল্প আছে। সেখানে বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধাসহ ১,৩২৮ থেকে ২,২০০ বর্গফুটের ফ্ল্যাট রয়েছে। প্রতি বর্গফুটের দাম ৫ হাজার ৬০০ থেকে ৭ হাজার টাকা।

কনডোমিনিয়াম ছাড়া নাভানার অন্য উল্লেখযোগ্য প্রকল্পগুলো হচ্ছে বারিধারা, গুলশান, ধানমন্ডি, লালমাটিয়া, বনানী, উত্তরা, বসুন্ধরা, খিলগাঁও, বাড্ডা, ইস্কাটন ও হাতিরপুল এলাকায়। এসব প্রকল্পে ১,১৬০ থেকে ৫,০০০ বর্গফুটের ফ্ল্যাট আছে। প্রতি বর্গফুটের দাম ৭ হাজার ২০০ থেকে ৩২ হাজার টাকা পর্যন্ত। 

নাভানা রিয়েল এস্টেটের স্টলে ফ্ল্যাটের খোঁজ নিচ্ছেন ক্রেতারা।  ছবি: প্রথম আলো

নাভানা রিয়েল এস্টেটের স্টলে ফ্ল্যাটের খোঁজ নিচ্ছেন ক্রেতারা।

জানতে চাইলে নাভানার সহকারী বিক্রয় মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ জাকির হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘মধ্যম আয়ের মানুষের কথা চিন্তা করে আমাদের বেশির ভাগ ফ্ল্যাট প্রকল্প তৈরি করছি। আসছে বছর আরও বেশ কিছু নতুন প্রকল্প নেব।’

ঢাকা ও চট্টগ্রামের ২০টির বেশি প্রকল্প নিয়ে এসেছে কনকর্ড রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট। লেকসিটি কনকর্ডেই তাদের রয়েছে ১০০টির বেশি ফ্ল্যাট। ১,০০০ থেকে ১,৫০০ বর্গফুট আয়তনের এসব ফ্ল্যাটের প্রতি বর্গফুট দাম ৫ হাজার থেকে সাড়ে ৭ হাজার টাকা। এ ছাড়া রাজধানীর গুলশান, বনানী, বারিধারা, ধানমন্ডি, উত্তরা, শ্যামলীতে কনকর্ডের ১৮টি ফ্ল্যাট প্রকল্প আছে। ওই সব প্রকল্পে ২,০৮০ থেকে ৪,৫০০ বর্গফুট আয়তনের ফ্ল্যাটের প্রতি বর্গফুট দাম ১৪ হাজার থেকে ৩০ হাজার টাকা। তাদের চট্টগ্রামের দুটি প্রকল্পে ৬০টির বেশি ফ্ল্যাট আছে। ২,১০০ থেকে ৩,০০০ হাজার বর্গফুট আয়তনের এসব ফ্ল্যাটের প্রতি বর্গফুটের দাম ৭ হাজার থেকে ১২ হাজার টাকা। এ ছাড়া ঢাকা ও চট্টগ্রামে ৭টি বাণিজ্যিক প্রকল্প রয়েছে কনকর্ডের। এসব প্রকল্পের ফ্ল্যাটের প্রতি বর্গফুটের দাম ২০ হাজার থেকে ৯৫ হাজার টাকা।

শান্তা হোল্ডিংসের একটি প্রকল্পের নকশা দেখছেন একজন দর্শনার্থী।  ছবি: প্রথম আলো

শান্তা হোল্ডিংসের একটি প্রকল্পের নকশা দেখছেন একজন দর্শনার্থী।

জানতে চাইলে কনকর্ডের উপব্যবস্থাপক মো. তারেকুল আলম জানান, মেলায় তাঁদের ফ্ল্যাট কেনার বুকিং দিলে ক্রেতারা বিশেষ মূল্যছাড় পাবেন। এ ছাড়া চট্টগ্রামের ফয়’স লেকের রিসোর্টে দুই রাত তিন দিন পরিবার নিয়ে বিনা মূল্যে থাকতে পারবেন ক্রেতা।

অনেক দিন পর রিহ্যাব মেলায় অংশ নিয়েছে আবাসন প্রতিষ্ঠান শান্তা হোল্ডিংস। রাজধানীর গুলশান, বনানী, বারিধারা ও ধানমন্ডি এলাকায় প্রতিষ্ঠানটির ২০টি ফ্ল্যাট ও ৪টি বাণিজ্যিক প্রকল্প রয়েছে। তাদের এসব ফ্ল্যাটের আকার ২,০০০ থেকে ১২,০০০ বর্গফুট। 

শান্তা হোল্ডিংসের ব্যবস্থাপক মো. নিয়ামুল কবীর প্রথম আলোকে বলেন, ‘অনেক দিন পর আমরা রিহ্যাবের আবাসন মেলায় অংশ নিয়েছি। তবে বিক্রির চেয়ে ক্রেতাদের সামনে আমাদের প্রকল্প তুলে ধরা এবং তাঁদের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনই আমাদের মূল উদ্দেশ্য।’

রিহ্যাবের মেলা সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা। মেলায় একবার প্রবেশের জন্য টিকিটের মূল্য ৫০ টাকা। আর মাল্টিপল এন্ট্রির টিকিটের দাম ১০০ টাকা। মেলা শেষ হবে আগামী শনিবার।

মন্তব্য