আমাদের মেইল করুন abasonbarta2016@gmail.com
বাড়ি তৈরির আগে জানুন টাইলসের প্রকারভেদ

টাইলস নির্মাণের এক বিশেষ ধরণের সামগ্রী। চুল্লীতে পোড়ান কম পুরুতের কাঁদার তৈরি স্ল্যাবকে টাইলস বা টালি বলে। নির্মাণ কাজে ব্যবহারের সুবিধার্থে বিভিন্ন আকার ও মাপের টালি তৈরি করা হয়। যেমনঃ ঘরের ছাউনি, মেঝে বাঁধাই, ড্রেন নির্মাণ, শোভা বর্ধন ইত্যাদি নানাবিধ প্রয়োজনে টালি ব্যবহত হয়।
টালি মোটা মুটি পাঁচ প্রকারঃ
১। কাঁদার টালিঃ এই জাতীয় টালি সাধারণতঃ ঘরের ছাউনীর কাজে বেশি ব্যবহার করা হয়। ছাউনির কাজে ব্যবহত টালির মধ্যে সচারচর যে সব টালি ব্যবহত হয়, সেগুলো হলো-
ক) প্লেইন টালিঃ কাঁদা দিয়ে হাতে প্রস্তুত করা হয়। আটকানোর জন্য দুটি ছোট প্রজেকশন রাখা হয়।
খ) প্যান টালিঃ এই টালির মাপ- ৪১.২ x ২৩ x ১.৯ সেমি। আটকানোর জন্য কিনারা গুলোতে খাঁজ কাটা থাকে।
গ) পট টালিঃ ফাঁপা গোলাকার, অর্ধ গোলাকার, ট্যাপারিং ইত্যাদি বিভিন্ন আকৃতির হয়ে থাকে। এর দৈর্ঘ্য ২৫-৩০ সেমি, এক প্রান্তের ব্যাস ১৫ সেমি এবং অপর প্রান্তের ব্যাস ১২.৫ সেমি ও পুরুত ৯ মিমি।
ঘ) ফ্লাট টালিঃ এই টালির মাপ ১৫ x ১৫x ১.২ সেমি হতে ২০ ২০ ১.২ সেমি হয়ে থাকে।
ঙ) রিজ টালিঃ ভি-আকৃতির এই টালির দৈর্ঘ্য ৪৫ থেকে ৫০ সেমি হয়ে থাকে।
২। কংক্রিট টালিঃ এই জাতীয় টালি ১ঃ৩ (সিমেন্টঃবালি) অনুপাতের সিমেন্ট মর্টারের সাথে কাঙ্ক্ষিত রঙ এবং এর উপাদান মিশিয়ে প্রয়োজনীয় আকার আকৃতিতে তৈরি করা হয়। যে কোন মেঝে বা পায়ে চলার পথ নির্মাণে এই টালি ব্যবহার করা হয়।
৩। মেঝে টালিঃ এই জাতীয় টালি সাধারণতঃ বর্গাকৃতি হয়ে থাকে। এর আকার ১৫ সেমি থেকে ৩০ সেমি এর মধ্যে হয়ে থাকে এবং পুরুত ১২ মিমি থেকে ৫০ মিমি পর্যন্ত হয়। এই টালি মোজাইকের বা প্লাস্টিকের বা মার্বেলের হতে পারে। সিমেন্ট ও ছোট ছোট মার্বেল পাথর দাবা ১ঃ২ অনুপাতে ব্যবহার করে মোজাইক টালি তৈরি করা হয়।
৪। দেয়াল টালিঃ এই জাতীয় টালির আকার সাধারণতঃ ১৫ x ১৫ x ১.২ সেমি হয়ে থাকে। ইহা মোজাইক, প্লাস্টিক বা মার্বেলের হয়ে থাকে।
৫। ড্রেন টালিঃ পানি নিষ্কাশনের নালা নির্মাণের জন্য অর্ধবৃত্তাকার অথবা ভি বা ইউ অক্ষরের আকারে ৬০ সেমি হয়ে ১২০ সেমি দৈর্ঘ্যে প্রস্তুত করা হয়।

মন্তব্য