আমাদের মেইল করুন abasonbarta2016@gmail.com
রিহ্যাবের আবাসন মেলা শুরু ২৩ ডিসেম্বর

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ২৩ ডিসেম্বর শুরু হচ্ছে পাঁচ দিনব্যাপী আবাসন মেলা। মেলার কো-স্পন্সর হিসেবে রয়েছে দেশের শীর্ষ শিল্প গোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ইস্ট ওয়েস্ট প্রোপার্টি ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড।

২৩ ডিসেম্বর বেলা ১১টায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে মেলার উদ্বোধন করবেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি থাকবেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শরীফ আহমেদ, সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার, রাউজকের চেয়ারম্যান এবিএম আমিন উল্লা নূর ও এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন।

রোববার (১৯ ডিসেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পাঁচ দিনব্যাপী রিহ্যাব মেলার বিস্তারিত তুলে ধরেন রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশের (রিহ্যাব) ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মোহাম্মদ সোহেল রানা।

তিনি বলেন, ২৩ থেকে ২৭ ডিসেম্বর মেলা চলবে সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। তবে উদ্বোধনের দিন বেলা ২টা থেকে দর্শনার্থীদের প্রবেশ করার সুযোগ থাকবে। এবারের মেলায় আবাসন খাত সংশ্লিষ্ট ২২০টি স্টল থাকবে। এর মধ্যে দুটি ডায়মন্ড প্যাভিলিয়ন, ছয়টি গোল্ড প্যাভিলিয়ন, ২২টি কো-স্পন্সর প্যাভিলিয়ন, ১৫টি বিল্ডিং ম্যাটেরিয়ালস প্যাভিলিন ও ১৩টি অর্থলগ্নীকারী প্রতিষ্ঠানকে সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

মেলায় দর্শনার্থীদের প্রবেশ টিকিটের দাম ধরা হয়েছে ৫০ টাকা ও ১০০ টাকা। ৫০ টাকার টিকিট দিয়ে একজন একবারই মেলায় প্রবেশ করতে পারবেন। আর ১০০ টাকার দিয়ে পাঁচবার প্রবেশ করা যাবে।

সংবাদ সম্মেলনে রিহ্যাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট কামাল মাহমুদ বলেন, নির্মাণ সামগ্রীর দাম বাড়ায় অনেক প্রকল্পের কাজ বন্ধ রয়েছে। আগে এক টন রডের দাম ছিল ৫২ হাজার টাকা, এখন ৮২ হাজার টাকা। দাম মনিটরিং করার জন্য একটি সেল থাকলে হঠাৎ করেই কোনো পণ্যের দাম এভাবে বাড়ত না।  

তিনি আরও বলেন, আমাদের রেডি ফ্ল্যাটগুলোর বিক্রি শেষ পর্যায়ে। কালো টাকা আবাসনখাতে বিনিয়োগের সুযোগ না দিলে বিদেশে পাচার হয়ে যেত।  

এখন পর্যন্ত আবাসনখাতে ২০ হাজার কোটি কালো টাকার বিনিয়োগ হয়েছে বলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলে কামাল মাহমুদ।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন রিহ্যাবের আরেক ভাইস প্রেসিডেন্ট লায়ন শরীফ আলী খান।

মন্তব্য